কম্পিউটার

সাইফুল ইসলাম.কুমিল্লা

ভাইরাস হচ্ছে কম্পিউটারের সবচেয়ে বড় একটি সমস্যা । ভাইরাসের সমস্যা সমাধানে ব্যবহৃত এন্টিভাইরাসগুলোতেও রয়েছে নানাবিধ সমস্যা । প্রায় সব করয়টি এন্টিভাইরাসই কম্পিউটারের স্পীড স্লো করে দেয় । ডিপফ্রীজএমনি একটি সফ্টওয়ার এর ব্যবহারে উইন্ডোজ নিরাপদ থাকবে ১০০% । কম্পিউটারের স্পীড কখনোই স্লো হবে না । এ ছাড়া ডিপফ্রীজ থাকলে ভাইরাস স্কেন করার ঝামেলও থাকে না । 
ডিপফ্রীজ কিভাবে কাজ করে :

ডিপফ্রীজ থাকা অবস্থায় কম্পিউটারে কোন ফাইল সেভ করে restart করলে সে ফাইলটি আর থাকবে না । কম্পিউটারে জমা আছে এমন কোনো ফাইল ডিলিট করে রিস্টার্ট করলে সে ফাইলটি আবার ফিরে পাওয়া যাবে । মোটকথা ডিপফ্রীজ অবস্থায় কম্পিউটারের যতকিছুই পরিবর্তন করা হোক না কেন রিস্টার্ট করার পর কম্পিউটার আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসবে । একারণে কম্পিউটার চালু আবস্থায় যদি কখনো ভাইরাস ঢুকে পড়ে রিস্টার্ট করার পর সেটি আর থাকে না ।
ডিপফ্রীজ সেটাপ :

যে ড্রাইভে উইন্ডোজ সেটাপ করা আছে সে ড্রাইভে ডিপফ্রীজsetup সেটাপ করুন । কম্পিউটার ফরমেট করার পর ডিপফ্রীজsetup সেটাপ করে নেয়া উত্তম । ডিপফ্রীজ সেটাপetup করার সময় কিম্পউটারের সব কয়টি ড্রাইভ ( সি ড্রাইভ, D ডি ড্রাইভ,ই ড্রাইভ ) টিক চিন্থ সহকারে দেখা যাবে । কম্পিউটারের যে ড্রাইভেউইন্ডোজ সেটাপ করা আছে সে ড্রাইভ ছাড়া বাকী ড্রাইভগুলোর টিক চিন্হ সরিয়ে দিয়ে সেটাপ কমপ্লিট করুন । ফাইল সেভ করার প্রয়োজনা না হলে সব কয়টি পার্টশানে ডীপফ্রীজ সেটাপ করতে পারেন ।
সেটাপ শেষ করার সাথে সাথে কম্পিউটার রিস্টার্ট হবে । রিস্টার্ট হবার পর একটি ডায়ালগ বক্স আসবে । ওকে করে পাসওয়ার্ড দিয়ে লক করুন ।
ডিপফ্রীজsetup সেটাপ করার পর সেটিকে আর রিমোভ বা আনইন্সটল করা যাবে না । তাই সেটাপ করার আগে ভাল করে এর ব্যবহার জেনে নিন । প্রয়োজনে ডিপফ্রীজsetup ওপেন করে প্রয়োজনীয় ফাইল সেভ আথবা সেটাপ করতে পারেন অথবা যে ড্রাইভে ফ্রিজ করা নেই সে ড্রইভে প্রয়োজনীয় ফাইল সেভ করতে পারেন । সিফ্ট কী চেপে ধরে টাস্কবারে  ডিপফ্রীজsetup এর আইকনে ক্লিক করুন । একটি ডায়ালগ বক্য আসবে । পাসওয়ার্ড দিয়ে লক করুন ।
Boot thawed সিলেক্ট করে দু’বার ok করে রিস্টার্ট করুন । 
প্রয়োজনীয় ফাইল সেটাপ অথবা সেভ করে আগের নিয়মে ডিপফ্রীজsetup ওপেন করে frozen সিলেক্ট করুন । রিস্টার্ট করার পর কম্পিউটার আবার ফ্রীজ অবস্থায় ফিরে আসবে । ডিপফ্রীজsetup ওপেন করার পর যে সমস্ত ফাইল সেভ করতে চান সেগুলোতে যদি ভাইরাস থাকে তাহলে ডীপফ্রীজ ব্যবহার করে কোন লাভ হবে না । কোন ফাইল Save করতে চাইলে সেটিকে এন্টিভাইরাস দিয়ে স্কেন করে ভাইরাস রিমোভ করে নিন ।   

কিছু কিছু ট্রায়াল সফওয়ার আছে যেগুলোক ১ সপ্তাহ , ১০ দিন, ২০ দিন, ১ মাস পর্যন্ত ব্যবহার করা যায় । ঐ সব সফ্টওয়ার সেটাপ করে Deep freeze করলে সেটিকে সব সময় ব্যবহার করা যাবে ।

ডাইনলোড  DeepFreeze5.০ ফুল ভার্সন

 

 

One Response to “”

  1. […] ভাইরাসের ঝামেলা থেকে মুক্ত থাকুন >>বিস্তারিত বুটেবল এক্সপি সিডি তৈরি করুন […]

 
%d bloggers like this: